মালয়েশিয়ার রাজা প্রেমের টানে সিংহাসন ছাড়লেন ?

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:১২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৬, ২০১৯ | আপডেট: ১১:১২:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৬, ২০১৯
ছবিঃ সংগৃহিত

সাবেক ‘মিস মস্কো’র সঙ্গে বিয়ের গুঞ্জনে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন মালয়েশিয়ার ১৫তম রাজা সুলতান মোহাম্মদ পঞ্চম। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম দাবি করে মস্কোতে হয়েছে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান।

সে সময় সংবাদমাধ্যমের পক্ষ থেকে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি সরাসরি বিয়ের কথা অস্বীকার করেননি।

তবে তিনি দাবি করেছিলেন, ‘মিস মস্কো’ ওকসানাকে চেনার কথা অস্বীকার করেন তিনি। আর বিয়ের ব্যাপারেও তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানানো হয়নি।

ধারণা করা হচ্ছে, প্রেম ও বিয়েকে ঘিরে তৈরি হওয়া গুঞ্জন এড়াতেই এমন সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

রবিবার রাজপ্রাসাদের এক মুখপাত্র জানালেন, সংবিধানের ৩২ (৩) ধারা অনুযায়ী দেশের সর্বোচ্চ শাসকের পদ থেকে অব্যাহতি নিয়েছেন তিনি।

রাজপরিবারের বিবৃতিতে রাজার পদত্যাগের কারণ হিসেবে নিজ রাজ্যের জনগণের স্বার্থ রক্ষায় তাদের কাছে ফিরে যাওয়ার কথা জানানো হয়েছে। তবে মালয়েশিয়ার সংবাদমাধ্যমগুলো ধারণা করছে, বিতর্কের অবসান ঘটাতেই তিনি পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

সুলতান মুহাম্মদই প্রথম মালয়েশিয়ার রাজা, যিনি পাঁচ বছর মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার দুই বছর আগেই মসনদে আসীন থাকাকালীন পদত্যাগ করলেন।

দেশটির ন্যাশনাল প্যালেসের এক বিবৃতিতে তাৎক্ষণিকভাবে রাজার পদত্যাগ কার্যকরের তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। রাজপরিবারের কম্পট্রোলার ওয়ান আহমাদ দাহলান বলেছেন, মালয় শাসকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন সুলতান মুহাম্মদ, যিনি ২০১৬ সালের ১৩ ডিসেম্বর ১৫তম রাজা হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

একই সঙ্গে দেশ পরিচালনা কাজে সহায়তা করায় মালয়েশিয়ার এই রাজা প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ ও ক্ষমতাসীন সরকারের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

১৯৫৭ সালে ব্রিটিশ শাসন থেকে মুক্ত হয় মালয়েশিয়া। স্বাধীনতা লাভের পর থেকে মালয়েশিয়ার বিভিন্ন প্রদেশের শাসকদের মধ্য থেকে মনোনীত একজন দেশের রাজার দায়িত্ব পালন করে আসছেন। ২০১৬ সালে মালয়েশিয়ার রাজা নির্বাচিত হন মুহাম্মদ। দেশটির নয়টি রাজ্যের সুলতানরা পাঁচ বছরের জন্য তাকে নির্বাচিত করেন।