মিজোরামকে এক ইঞ্চি জমিও দেবো না: মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:০০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২১ | আপডেট: ৮:৪১:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২১

পরিস্থিতি এখনো উত্তপ্ত ভারতের দুই রাজ্য আসাম ও মিজোরামের মধ্যে সীমান্ত সংঘর্ষের পর। আসামের অভিযোগ লাইট মেশিনগান ব্যবহার করেছে মিজোরামের পুলিশ। অপরদিকে মিজোরামের পাল্টা অভিযোগ, সীমানা পেরিয়ে তাদের পোস্ট দখল করেছে আসাম পুলিশ। তার জেরেই এই সংঘর্ষ।

আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা সাফ জানিয়ে দিলেন, তার সরকার সীমানায় শান্তি চায়। তবে তার জন্য এক ইঞ্চি জমিও তারা ছাড়বেন না।

সংঘর্ষে আহতদের দেখতে মঙ্গলবার শিলচর হাসপাতালে যান হিমন্ত। সেখান থেকে বেরিয়ে সংবাদমাধ্যমের সামনে তিনি বলেন, ‘এই সংঘর্ষ দুটি রাজনৈতিক দলের মধ্যে হয়নি। হয়েছে দু’টি রাজ্যের মধ্যে। আসামে যখন কংগ্রেস ক্ষমতায় ছিল তখনো সংঘর্ষ হয়েছে। আমরা শান্তি চাই। তার জন্য যা পদক্ষেপ নিতে হবে নেব। কিন্তু এক ইঞ্চি জমিও দেব না। ওদের এলাকা দখলও করতে যাব না।’

দু’টি রাজ্যের মধ্যে থাকা বনাঞ্চল নিয়েই দীর্ঘদিন ধরে এই সঙ্ঘাত চলে আসছে বলে দাবি করেছেন হিমন্ত। তিনি বলেন, ‘মিজোরামের মানুষদের সাথে আমাদের লড়াই নয়। জমির জন্যও এই লড়াই নয়। আসাম ও মিজোরামের মধ্যে থাকা বনাঞ্চল নিয়ে এই সঙ্ঘাত। আসাম সরকার বনাঞ্চল রক্ষা করছে। সেই লড়াই চলবে। তবে আমি মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পরে ওদের এক ইঞ্চি জমিও নিইনি। আগামী দিনেও আমরা ওদের এলাকায় যাব না। তবে ওরা এলে প্রতিরোধ করব।’

এদিকে মঙ্গলবার সকালে দুই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সাথেই ফোনে কথা বলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন তিনি। সেই প্রসঙ্গও তোলেন হিমন্ত। তিনি বলেন, ‘কেন্দ্র চাইছে সমস্যার সমাধান করতে। আমাদের কথা আমরা জানিয়েছি। এই বনাঞ্চল আসামের। কিন্তু কেন্দ্র যদি বলে তারা বনাঞ্চলের দায়িত্ব নেবে তাহলে আমরা ছেড়ে দেব। কারণ আমরা এই দেশেরই অঙ্গ। তাই কেন্দ্রের নির্দেশ আমাদের মানতেই হবে।’

এর আগে সোমবার আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা টুইট করে জানান, এ সীমান্ত সংঘর্ষে আসামের ছয়জন পুলিশ কর্মী নিহত হয়েছেন। এছাড়া আহত হয়েছেন অনেকে।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা