মির্জাগঞ্জে করোনার টিকা নেওয়ার সংখ্যা বাড়ছে

উত্তম গোলদার উত্তম গোলদার

মির্জাগঞ্জ(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৭:১৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২১ | আপডেট: ৭:১৯:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২১

পটুয়াখালী মির্জাগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে করোনার টিকা রেজিষ্ট্রেশন ও টিকা নেওয়ার টিকা নিতে আগ্রহী মানুষের সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। ফলে হিমশিম খেতে হচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। বর্তমানে করোনা রোগী বৃদ্ধি পাওয়ায় মানুষের মাঝে গণসচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে।

তাই মির্জাগঞ্জ হাসপাতালে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করে টিকা নিয়ে বাড়ি ফিরছেন তারা। জানা যায়, কোভিট ১৯ শুরুর প্রথম দিকে টিকা নিতে জনসাধারণের মধ্য তেমন একটা আগ্রহ ছিলোনা, এমনকি মাইকিং এ প্রচার কর হলেও তেমন সাড়া মেলেনি। এদিকে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মির্জাগঞ্জ উপজেলা করোনা রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় সাধারণ মানুষের মধ্য আতংক বিরাজ করছে।

সাধারন মানুষের মাঝে করোনা বিষয়ে সচেতনা সৃষ্টি হয়েছে। এসব সচেতনতার কারনে এখন সবাই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে টিকা নেওয়ার জন্য ভিড় করছেন। গতকাল সোমবার সকাল দশটায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,হাসপাতালের টিকা কেন্দ্রে টিকা টিকা নেওয়া ও রেজিষ্ট্রেশন করার জন্য পুরুষ-মহিলাদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ করা গেছে। লাইনে সারিবদ্ধ ভাবে দাড়িয়ে তারা টিকা নিচ্ছেন। সব শ্রেণি পেশার মানুষের মাঝে টিকা নেওয়ার জন্য হাসপাতালে আসছেন। কেউবা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে গিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করাচ্ছেন, আবার অনেকে নিজস্ব মোবাইলে, কেউ বা সাধারন মানুষ ছুটছেন কম্পিউটারে দোকানে। এভাবেই টিকা নেয়ার জন্য যার যার মতো রেজিষ্ট্রেশন করতে দেখা গেছে।

টিকা নিতে আসা পশ্চিম সুবিদখালী গ্রামের মোঃ শাকিল বলেন, প্রথমে টিকা নিতে আগ্রহী ছিলাম না, এখন দেখি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিনা মুল্য টিকা দেওয়ার ব্যাবস্থা করেছেন। তাই টিকা নিলাম এবং সুরক্ষা থাকলাম ও অন্যজনকে টিকা নেয়ার জন্য উৎসাহ করছি। টিকা নিলাম এখন খুব ভাল লাগছে। একই গ্রামের মোঃ মাসুম জোমাদ্দার বলেন, বৃষ্টিতে ভিজেও টিকা নিতে হাসপাতালে এসেছি। সরকার টিকা নেয়ার বয়স কমিয়ে ভালোই করেছে। যাতে টিকা নিতে পারলাম। এভাবেই বিভিন্ন শ্রেনীর পেশার মানুষের মাঝে করোনা টিকা নিতে দেখা গেছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ দিলরুবা ইয়াসমিন বলেন, সাধারণ মানুষের মাঝে করোনার বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে। করোনা রোগীর শনাক্ত সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। তাই টিকা নেওয়ার জন্য রেজিষ্ট্রেশন এর সংখ্যা বাড়ছে। প্রথমে ৬ হাজার ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। এখন সিনোফার্মার ২ হাজার ৮০০ ডোজ টিকা দেওয়া চলমান রয়েছে। মোট ৮ হাজার আটশত ডোজ টিকা পাওয়া গেছে বলে তিনি জানান।