‘মুসলিমদের অযোধ্যায় ‘রামমন্দির’ নির্মাণে সাহায্য করা উচিৎ’

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৫৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮ | আপডেট: ৫:৫৬:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮

ভারতের মুসলিমদের অযোধ্যায় রামমন্দির তৈরি করতে সাহায্য করা উচিৎ বলে মন্তব্য করেছেন পাক বংশোদ্ভূত বিশিষ্ট কানাডিয়ান লেখক তারেক ফাতাহ। তার দাবি পাকিস্তানের সদ্য প্রধানমন্ত্রী হওয়া ইমরান খানের হাতে কোনো ক্ষমতা নেই। সব ক্ষমতা তার পীর স্ত্রী বুশরা মনেকার হাতে।

সম্প্রতি একটি টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তারেক ফাতাহ এসব কথা বলেন।

সাক্ষাৎকারে ভারতীয় মুসলিমদের সম্পর্কে বলতে গিয়েও তিনি বলেন সেখানকার মুসিলমরাই একমাত্র গোটা দুনিয়ায় সুখী মানুষ। তারা নিশ্চিন্তে ভোট দিতে পারেন। এই উপমহাদেশ প্রথমে মসজিদ তৈরি হয় কেরালায়। ভারতের মুসলিমদের উচিৎ অযোধ্যয় রামমন্দির তৈরি করতে সাহায্য করা।

পাকিস্তানের সাম্প্রতিক জাতীয় নির্বাচনে তেহরিক-ই ইনসাফ পার্টি (পিটিআই) সর্বাধিক আসন লাভ করে। প্রধানমন্ত্রী হন ইমরান খান। ধীরে ধীরে গুছিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছেন তিনি। নির্বাচনের প্রচারে তার তৃতীয় বিয়ে নিয়ে প্রচার করেছিল বিরোধীরা। এবার সে কথাই টেনে ইমরান খানের তীব্র সমালোচনা করে ফাতাহ বলেন, তার (ইমরান) হাতে কোনো ক্ষমতা নেই। আসল ক্ষমতা রয়েছ স্ত্রী বুশরা মানেকার হাতে।

প্রসঙ্গত বিয়ের আগে বুশরাকে নিজের আধ্যাত্মিক পথপ্রদর্শক বলে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন ইমরান। তাবে তাকে (বুশরা) ব্ল্যাক ম্যাজিশিয়ান বা তান্ত্রিক বলে বর্ণনা করেছেন ফাতাহ।

এছাড়া ইমরান খানের পাকিস্তান ক্রিকেট দলে স্থান পাওয়া নিয়েও মন্তব্য করেছন ফাতাহ। বলেছেন, ইমরান নিজের যোগ্যতায় নয়, জেনারেল নিয়াজির সুপারিশেই স্থান পান। ইমরান খান আসলে পাঠানই নন। এ ধরনের লোকজন যেকোনো সময় হাতিয়ার ছেড়ে আত্মসমর্পণ করতে পারেন।

সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানেরও কঠোর সমালোচনা করে ফাতাহ বলেন, যেসব লোকজন দ্বিজাতিতত্বের পক্ষে তারা কিছুতেই ভাল লোক হতে পারে না। পাকিস্তান ৫০ হাজার বালুচকে খুন করেছে, বাংলাদেশে ৩ লাখ। আর ৫ লাখ কাশ্মীরি পণ্ডিত ঘরছাড়া হয়েছেন। এনিয়ে পাকিস্তান কোনো কথা বলে না। কাশ্মীর নিয়ে দরদের সীমা নেই।

সূত্র : জি নিউজ