যশোরে করোনা ভাইরাস ঝুকি কমাতে দাতা সংস্থা জাইকা-র মানবিক সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছে

শহিদ জয় শহিদ জয়

যশোর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৫:৫৩ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৮, ২০২১ | আপডেট: ৫:৫৩:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৮, ২০২১

দাতা সংস্থা জাইকা-র আর্থিক সহযোগিতায় পরিচালনায় এবং এশিয়া আর্সেনিক নেটওয়ার্ক- বাংলাদেশ-এর মাধ্যমে বাস্তবায়নে “যশোর জেলার ৮ টি উপজেলা শ্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পানি সরবরাহের উন্নতি ও শ্বাস্থ্য চর্চার মাধ্যমে করোনা ভাইরাসের ঝুকি হ্রাস প্রকল্পের” আওতায় আজ বুধবার যশোর সদর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বহির্বিভাগের সেবা গ্রহিতাদের সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে এস.এস রেলিং ফেন্স প্রদান করা হয়।

উক্ত ফেন্স গ্রহণ করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ মীর আবু মাউদ। এসময় উপস্থিত ছিলেন সহকারি সার্জন ডাঃ আদনান ইমতিয়াজ রহমান, রাশিদা খাতুন এবং প্রকল্পের পক্ষ থেকে উপস্হিত হাইজিন প্রমোশন সুপার ভাইজার মুজিবার রহমান দেবব্রত ঘোষ সুমন এবং রিফাত আরা রিমুসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

উক্ত কার্যক্রমের আওতায় ১৯ জন স্বাস্থ্য কর্মী ৯টি হাসপাতালের বহির্বিভাগে আগত সেবা গ্রহিতাদের স্বাস্থ্য বিধি মেনে সেবা গ্রহণ (হাত ধোয়া, মাস্ক পরিধান, তাপমাত্রা পরিমাপ, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত ইত্যাদি) ও পালনে কাজ করছেন এপ্রিল, ২০২১ থেকে। তাছাড়া প্রকল্পের আওতায় সকল হাসপাতালে হাত ধোয়ার জন্য বেসিন স্থাপন, সাবান/ডিটারজেন্ট পাউডার সরবরাহ, বহির্বিভাগে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে রেলিং ফেন্স, সামাজিক দূরত্ব সার্কেল, টিকিট কাউন্তারে গ্লাস, তাপমাত্রা পরিমাপের থার্মাল থার্মোমিটার, মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ড গ্লভোস, চুলের নেট, ফেস শিল্ড, এপ্রন সহ বিভিন্ন ধরেনর ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী (পি পি ই) সরবরাহ নিশ্চিত করছে।

হাসপাতাল গুলিতে খাবার পানির ব্যবস্থা, বহির্বিভাগে আগত সেবা গ্রহিতাদের জন্য সিলিং ফ্যান, গর্ভবতী নারী ও বাচ্চাদের বুকের দুধ পান করানো নারীদের বসার জন্য চেয়ার সরবরাহের কাজ চলমান রয়েছে বলে এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়।