যশোরে কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষন, অতঃপর…

শহিদ জয় শহিদ জয়

যশোর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:৫০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২১ | আপডেট: ৯:৫০:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২১

বিয়ের প্রলোভন দিয়ে এক কিশোরীকে জোর পূর্বক ধর্ষন করায় ছেলে সন্তান প্রসব করলে পুলিশ লম্পট আকরাম হোসেনকে আটক করেছে। সে যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার ছোট খুদরা গ্রামের নুর হোসেন ও জুলেখা বেগমের ছেলে।

এ ঘটনায় কিশোরীর পিতা বাদি হয়ে সোমবার দিবাগত গভীর রাতে কোতয়ালি মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। পুলিশ লম্পট আকরাম হোসেনকে আদালতে সোপর্দ করেছে।

ধর্ষিতা ও সদ্য ছেলে সন্তান প্রসব কিশোরীর পিতা মামলায় উল্লেখ করেন, তিনি পরিবার নিয়ে যশোর সদর উপজেলা এলাকায় বসবাস করতেন। তিন সন্তান নিয়ে যশোর সদর উপজেলা এলাকায় স্থায়ীভাবে বসবাস করছিল। আকরাম হোসেন বাদির প্রতিবেশী ও পরিচিত। সে সুবাদে আকরাম হোসেন প্রায় সময় বাদির যশোর সদর উপজেলার উক্ত বসবাসরত বাড়িতে আসা যাওয়া করতো।

গত বছরের ৫ নভেম্বর উক্ত লম্পট বাদির বাসায় আসে এবং রাত্রী যাপন করে। পরের দিন ৬ নভেম্বর বাসা থেকে চলে যায়। ২৬ জুলাই সোমবার রাত্রে উক্ত কিশোরী এক ছেলে সন্তান জম্ম দেয়। কিশোরী ঘটনার পর হতে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে ফাঁস করে দেয় উক্ত যুবক তাকে ওই রাতে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষন করে। বিষয়টি কিশোরীর পরিবারের সদস্যরা উক্ত লম্পট আকরাম হোসেনের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করলে তারা কর্নপাত না বরং উল্টো হুমকী ধামকী দেয়।

কিশোরী ছেলে সন্তান জন্ম দেওয়ার পর কিশোরীর পিতা জরুরী সেবা ৯৯ তে ফোন দিয়ে ঘটনা জানালে পুলিশ ২৬ জুলাই রাতে বাদিকে সাথে নিয়ে বাঘার পাড়া এলাকার ছোট খুদরা গ্রামে অভিযান চালিয়ে আকরাম হোসেনকে আটক করে।