যে সকল কারণে সমালোচিত ছিলেন নুরুল ইসলাম নাহিদ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:৫৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৬, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৫৪:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৬, ২০১৯
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। ফাইল ছবি

একাদশ সংসদের নতুন মন্ত্রিসভার সদস্য হিসেবে শপথ নেওয়ার আমন্ত্রণ পেয়েছেন ৪৬ জন সদস্য। এর মধ্যে মন্ত্রী হিসেবে ২৪ জন, প্রতিমন্ত্রী হিসেবে ১৯ জন এবং ৩ উপমন্ত্রী জন সদস্য। এদের মধ্যে নেই শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের নাম। তিনি এবারের মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়ছেন।

নুরুল ইসলাম নাহিদের স্থলে শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করবেন একাদশ জাতীয় সংসদে চাঁদপুর-৩ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য (এমপি) ডা. দিপু মনি। এর আগে নবম জাতীয় সংসদে ডা. দিপু মনি বাংলাদেশের প্রথম মহিলা পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

এদিকে ২০০৯ সাল থেকে টানা দুই মেয়াদে শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন নাহিদ। ২০১৭ সালের ২৫ ডিসেম্বর এক অনুষ্ঠানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শকদের প্রতিবেদন দেয়ার ক্ষেত্রে ‘সহনশীল মাত্রা’য় ঘুষ খাওয়ার বক্তব্য দিয়ে সমালোচিত হন নুরুল ইসলাম নাহিদ। এ ছাড়া একের পর এক বোর্ড পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁস, জেএসসি-পিএসসি পরীক্ষা, পাঠ্যপুস্তকে ভুলসহ নানা কারণে সমালোচিত হন তিনি।

২০১৩ এবং ২০১৪ সালে দেশে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকসহ বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার ঘটনা ঘটে। এসব ঘটনায় শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে নাহিদ সারাদেশে ব্যাপক সমালোচিত হন।

ধারণা করা হচ্ছে এসব সমালোচনার কারণেই বাদ পড়লেন নুরুল ইসলাম নাহিদ।