রাবি ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

মুজাহিদ হোসেন মুজাহিদ হোসেন

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১:৪৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ১০, ২০১৯ | আপডেট: ২:০৬:অপরাহ্ণ, জুলাই ১০, ২০১৯

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া সহ ছয় ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও লিচু চুরির মামলা দায়ের করার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে রাবি শাখা ছাত্রলীগ। বুধবার (১০জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিশ^বিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এ মানববন্ধন করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গত গত ১৫মে বাদী পক্ষের আইনজীবী মিজানুর রহমানের কাছে এ মামলা দায়ের করেন বাদী পক্ষ।

এই মামলায় অন্যতম আসামী রাবি ছাত্রলীগ সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ছাড়া অন্য আসামীরা হলেন- রাবি ছাত্রলীগের সহ সভাপতি সাদ্দাম হোসেন, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান কানন, উপ আন্তজার্তক বিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হাসান আশিক, আইন বিভাগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান আলী ও কর্মী মেহেদী হাসান বিজয়। এছাড়াও ক্যাম্পাসের বহিরাগত ছাত্রলীগ কর্মী আকাশ নামের একজনকেও এই মামলায় আসামী করা হয়েছে।

ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক সাব্বির হোসেন এর সঞ্চালনায় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন রাবি ছাত্রলীগের সহ- সভাপতি কাজী লিংকন, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান মিশু, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক আসাদুল্লাহা- হিল গালিব সহ বিশ^বিদ্যালয় ছাত্রলীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীর নামে উদ্দেশ্য-প্রণোদিতভাবে ভিত্তিহীন, বানোয়াট ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা করা হয়েছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়।

রাবি ছাত্রলীগ সবসময় ন্যায়ের পক্ষে থেকে কাজ করে যাচ্ছে। ক্যাম্পাসে বিভিন্ন সময় অস্থিতিশীল করার জন্য যারা প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে তাদের অন্যতম একটা অংশ এই মিথ্যা মামলা দায়ের কারীরা।

এছাড়া ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা মানববন্ধনে বলেন তারা আমাদের নেতাকর্মীদের অন্যায়ভাবে মেরে হাত ভেঙ্গে দিয়েছে আবার আমাদের উপর মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেছে। অতি শিঘ্রীই এই মামলার সুষ্ঠু তদন্ত করার দাবি জানায়।

প্রসঙ্গত, গত ৭ মে বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি বাগানে লিচু পাড়তে যায় রাবি ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মী। এসময় প্রহরীদের মারধরের শিকার হয় এই মামলার আসামী ও ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদুর রহমান কানন ও মেহেদী হাসান আশিক। প্রহরীদের মারে এই দুই নেতার হাত ও পা ভেঙ্গে যায়। বর্তমানে তারা চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।