শায়েস্তাগঞ্জে শ্বশুরের সাথে শৈলেনের নিখোঁজ নাটক

প্রকাশিত: ৬:৪৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৪৮:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯

জেলার শায়েস্তাগঞ্জের অলিপুরে প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে চাকরি হারিয়ে জীবিকা নির্বাহে টমটম ক্রয় করতে পরিবারের সাথে শৈলেন সরকার (২৭) নিখোঁজ নাটক করেছেন। নিখোঁজ হওয়ার ১৩ দিন পর শুক্রবার দিনগত রাতে ঢাকার গাজীপুর থেকে তাকে উদ্ধার করেছে শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশ।

রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকালে শায়েস্তাগঞ্জ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। গ্রেফতার হওয়া লাখাই উপজেলার লিল মোহন সরকারের ছেলে শৈলেন শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আনিসুর রহমানের কাছে জানায়, সে কর্মরত ছিল অলিপুরের আরএফএলে।

ছুটি নিয়ে বাড়ি গিয়ে কর্মস্থলে দেরিতে ফিরে। এ কারণে তার চাকরি চলে যায়। সিদ্ধান্ত নেয় টমটম ক্রয় করে জীবিকা নির্বাহ করবে। এ পরিকল্পনা করে শৈলেন নিখোঁজ নাটক তৈরী করে

১ সেপ্টেম্বর নিখোঁজ হয়ে একটি মোবাইল থেকে তার স্ত্রী ও শ্বশুরকে কল দিয়ে সে বলে তাকে ৭ জন লোক অজ্ঞাত স্থানে আটকে রেখে টাকার জন্য নির্যাতন করছে। টাকা দিলে তাকে ছেড়ে দিবে।

বিষয় জানার পর শৈলেনের স্বজনরা শায়েস্তাগঞ্জ থানায় এসে ৮ সেপ্টেম্বর নিখোঁজ হওয়া সংক্রান্ত একটি জিডি করেন।

থানা পুলিশ তদন্ত করে দেখতে পায় শৈলেনের দুই সিম রয়েছে। ২য় সিম থেকে সে কল দিয়ে নিখোঁজ হওয়ার কথা বলেছে। পরে মোবাইল ফোনের কলের সূত্র ধরে শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আনিসুর রহমানের নেতৃত্বে এসআই কাউছার মাহমুদ তরুণ, পিএসআই মোঃ আবু হানিফসহ একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে শৈলেনকে ঢাকার গাজীপুর থেকে উদ্ধার করে।

শৈলেন পুলিশকে জানায়, শ্বশুরের কাছ থেকে টাকা উদ্ধার করে টমটম ক্রয় করতে সে এ নিখোঁজ নাটক সাজিয়েছে। এটা করে সে ভুল করেছে।

শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আনিসুর রহমান এবং ওসি(তদন্ত) বিশ্বজিৎ দেব জানান, নিখোঁজ সংক্রান্ত জিডি হওয়ার পর পুলিশ গুরুত্বের সাথে এ বিষয়ে তদন্ত শুরু করে। উদ্ধার হওয়া শৈলেনের বিরুদ্ধে মামলা হবে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।