‘শিক্ষার্থীরাই ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির সম্পদ’

স্প্রিং ২০১৯ সেমিস্টারের ওরিয়েন্টেশন

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:৪৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০১৯ | আপডেট: ৮:৪৬:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০১৯
ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটিতে স্প্রিং ২০১৯ সেমিস্টারে ভর্তি হওয়া নবীন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশনে অংশগ্রহণকারীদের একাংশ। ছবি: টিবিটি

শিক্ষার্থীরাই আমাদের সম্পদ। মনোরম ক্যাম্পাস, নানা সুযোগ-সুবিধা এসব ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির সম্পদ নয়, শিক্ষার্থীদের সাজিয়ে তোলার অলংকার মাত্র।

ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটিতে স্প্রিং ২০১৯ সেমিস্টারে বিভিন্ন অনুষদে ভর্তি হওয়া নবীন শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন ক্লাসে এ মন্তব্য করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক সামস-উদ-দোহা। ১০ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ইডিইউর স্থায়ী ক্যাম্পাসে শুরু হয় এ অনুষ্ঠান।

ট্রেজারার আরো বলেন, চট্টগ্রামে বিশ্বমানের উচ্চশিক্ষা দেয়ার লক্ষ্যে যাত্রা শুরু হওয়া ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির যাবতীয় অর্জনের অংশীদার আজ থেকে তোমরাও।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় অনেক বড় একটি ক্যানভাস। ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি শিক্ষার্থীদের এ বিশালত্বকে ধারণ করতে শেখায়। দুর্বলতা কাটিয়ে বিশ্বমঞ্চে নিজেকে মেলে ধরার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রস্তুত করে তোলে ইডিইউ।

নবাগত শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে ধারণা দেয়া হয় অনুষ্ঠানে। দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হয় ওরিয়েন্টেশন ক্লাস। প্রথম পর্বে শিক্ষার্থীদের সামনে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেকটি অনুষদের শিক্ষকদের পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।

এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ে এই সেমিস্টার থেকে শুরু হওয়া অ্যাক্সেস অ্যাকাডেমি তাদের কার্যক্রম নিয়ে বিশদ আলোচনা করে। এখন থেকে প্রতি সেমিস্টারে ইডিইউতে ¯œাতক পর্যায়ে ভর্তি
হওয়া নতুন শিক্ষার্থীদের ইংরেজি ভাষা, গণিতের দুর্বলতা কাটিয়ে পরিপক্ক হয়ে উঠতে ও শিষ্ঠাচার শেখাতে এই অ্যাক্সেস অ্যাকাডেমি চালু হয়েছে।

দ্বিতীয় পর্বে দুপুর ১২টায় নিজ নিজ বিভাগের শিক্ষকদের সাথে সেশনে অংশ নেয় শিক্ষার্থীরা। এ সময় শিক্ষকরা নতুন শিক্ষার্থীদের ইডিইউর শিক্ষাপদ্ধতি ও কোর্সগুলো সম্বন্ধে বিস্তারিত বর্ণনা দেন।

এতে প্রত্যেক বিভাগের শিক্ষকরা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি বোর্ডের সদস্য সৈয়দ শফিকউদ্দীন আহমেদ, ট্রেজারার সজল কান্তি বড়–য়া, স্কুল অব লিবারেল আর্টসের ডিন মুহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিন ড. মো. নাজিম উদ্দিন, স্কুল অব বিজনেসের ডিন ড. মোহাম্মদ রকিবুল কবির, প্রক্টর অনন্যা নন্দী প্রমুখ।