‘শুরুতেই বাজিমাত করলো শিশুশিল্পী আয়াশ’

প্রকাশিত: ১০:২৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯ | আপডেট: ১০:৩৫:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯

ছোটপর্দার অত্যন্ত জনপ্রিয় তারকা জিয়াউল হক অপূর্ব। অভিনয় শিল্পটাকে এক কাব্যিক রুপ দিয়েছেন তিনি। বাংলাদেশের নাট্যজগতকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে যাদের অবদান অনস্বীকার্য, তাদের মধ্যেই একজন অপূর্ব। নাটকের পাশাপাশি বাংলা সিনেমাতেও তিনি রেখেছেন সাফল্যের ছাপ।

অপূর্বর একমাত্র সন্তান জায়ান ফারুক আয়াশ। বাবার মতই শৈল্পিক গুণ পেয়েছে ছোট্ট আয়াশ। ইতিমধ্যে ‘বিনি সুতোর টান’ শিরোনামের একটি নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে সেও প্রবেশ করেছে অভিনয় জগতে। এসেই একটা চমক দিয়ে সে নিজের অস্তিত্ব ও দীর্ঘ পথচলার জানান দিয়েছে।

ভিন্নমাত্রার এ নাটকে অভূতপূর্ব অভিনয়ের মাধ্যমে লাখো দর্শকের মনে জায়গা করে নিয়েছে সে। মাত্র সাড়ে তিন বছর বয়সেই নিজের যে দক্ষতার ছাপ রেখেছে, তাতে এটা সহজেই অনুমেয় যে, খুদে এই শিল্পী ভবিষ্যতের সম্পদ হিসেবেই অভিনয় জগতে ধরা দেবে।

তার দক্ষতার প্রমাণস্বরূপ এই বয়সেই ‘মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার ২০১৮’তে সেরা নবীন অভিনয়শিল্পী হিসেবে মনোনীত হয়েছে আয়াশ।

‘বিনি সুতোর টান’ নাটকে অভিনয়ের জন্যে মনোনয়ন পাচ্ছে সে। নাটকেও বাবা-ছেলে’র ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা গেছে দুজনকে। শিহাব শাহীনের রচনা ও পরিচালনায় চিত্রায়িত নাটকটি ইতিমধ্যেই ইউটিবে সাড়া ফেলে দিয়েছে। নাকটি ৫০ লাখেরও বেশিবার দেখা হয়েছে ইউটিউবে।

ছেলের এই অর্জনকে বড় করে দেখছেন অপূর্ব। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছেলেকে উদ্দেশ্য করে তিনি লেখেন, নাটকটির শুটিং যখন শুরু ওর বয়স তখন মাত্র সাড়ে তিন বছর। সাড়ে তিন বছরের একটা বাচ্চা যে তার মা, বাবা, পরিবার, আত্মীয়-সজন, বন্ধু বান্ধবের জন্য এতোটা গর্ব এনে দিবে এটাই ওর জন্য সবচেয়ে বড় পুরস্কার।

গুণী এ অভিনেতা আরো লেখেন, ‘আয়াশকে যে মেরিল প্রথম আলো থেকে ‘সেরা নবীন অভিনয়শিল্পী’ পুরস্কারের জন্য মনোনয়নে দাঁড়ানোর যোগ্য মনে করা হয়েছে এটাই অনেক বড় পাওয়া। মনোয়নে যারা আছে তাদের সবার জন্য শুভকামনা জানাই আর আয়াশের জন্য সবার কাছ থেকে চাই অনেক অনেক দোয়া চাই।’