সাকিবের অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন নাও হতে পারে: চিকিৎসক

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১:৩৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৮, ২০১৮ | আপডেট: ১:৩৬:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৮, ২০১৮

বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে তোলপাড় চলছে দেশের ক্রিকেটাঙ্গণে। গত শুক্রবার রাতে বাংলাদেশের এই তারকা ক্রিকেটার তার আঙুলের চোটের চিকিৎসা করাতে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে যান।

সেখানে যাওয়ার পর অর্থোপেডিক সার্জন প্রফেসর গ্রেগ হয়কে নিজের বাঁ হাতের কড়ে আঙুল দেখিয়েছেন সাকিব। তার পরই সাকিব জানতে পারলেন তার বাঁ হাতের কনিষ্ঠায় অস্ত্রোপচার নাও লাগতে পারে।

এ প্রসঙ্গে সাকিবের বিকেএসপির কোচ ও মেন্টর মোহাম্মদ সালাউদ্দিন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সাকিবের সঙ্গে আমার সবসময় যোগাযোগ হচ্ছে। সাকিব সেখানে ৭২ ঘণ্টা চিকিৎসক গ্রেগ হয়ের পর্যবেক্ষণে রয়েছে। এরপরই তার বিষয়ে কী করা যাবে, সেটা চিকিৎসক বুঝতে পারবেন।’

তিনি বলেন, ‘একাধিক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হবে সাকিব। তবে গ্রেগের কাছে দেখিয়ে সন্তুষ্ট মনে হলে অন্য চিকিৎসকদের কাছে না-ও যেতে হতে পারে তাকে। গ্রেগ সাকিবকে বলেছেন, আঙুলের ফ্র্যাকচারে অস্ত্রোপচার না করে বিশেষ ধরনের চিকিৎসা ব্যবস্থা আছে।

সেটা কার্যকর হলে ব্যথা অনুভূত হবে না। এমনকি অস্ত্রোপচার আর নাও লাগতে পারে। তিন মাস পর সে খেলা শুরু করতে পারবে। এরপর যদি সে ব্যথা অনুভব করে, তাহলে আঙুলের অবস্থা দেখে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

উল্লেখ্য, চলতি বছরের শুরুতে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে শ্রীলংকার বিপক্ষে ফিল্ডিংয়ের সময় ইনজুরিতে পড়েন সাকিব। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থেকে ব্যথাটা আবার বেড়ে যায়।

এর পরও ব্যথানাশক ইনজেকশন নিয়ে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে খেলেন তিনি। এভাবে খেলা চালিয়ে যাচ্ছিলেন সাকিব। কারণ তিনি চেয়েছিলেন এশিয়া কাপের পর আঙুলের অস্ত্রোপচার করাবেন।

কিন্তু পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের আগেই তার আঙুলের অবস্থা খারাপ হয়ে যাওয়ায় জরুরি ভিত্তিতে তাকে দেশে ফিরে আসতে হয়। পরে এ্যাপোলো হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তার আঙুল থেকে কয়েক দফা পুঁজ বের করা হয়।