সামনের দিনগুলো সরকারের জন্য সুখের হবে না : রিজভী

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:১৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০১৮ | আপডেট: ১০:১৬:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০১৮
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ফাইল ছবি

বিরোধী দলের ওপর উৎপীড়নের মাত্রা অব্যাহত থাকলে সরকারের সামনের দিনগুলো সুখকর হবে না বলে ক্ষমতাসীনদের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বুধবার রাতে রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, শেখ হাসিনার দু:শাসনের প্রকোপ প্রতিদিনই নুতন রূপ ধারণ করেছে। একদলীয় নির্বাচনের বাসনা সরকার প্রধানের অন্তরে নিত্যবিরাজমান বলেই বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করে গনতন্ত্রকে সমূলে উচ্ছেদে উঠে পড়ে লেগেছেন। তবে বিরোধী দলের ওপর উৎপীড়নের মাত্রা অব্যাহত থাকলে সরকারের সামনের দিনগুলো সুখকর হবে না। সরকারের সর্বব্যাপী নিপিড়নের সমুচিত জাবাব দিতে জনগন এখন ঐক্যবদ্ধ।

সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জনসভার বিষয়ে তিনি বলেন, জনসভাকে কেন্দ্র করে কয়েকদিন ধরে চলমান ধরপাকড়ের মাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সেখানে ভদ্রতার কোন নিয়মকানুন মানেনি। বরং বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর তাদের আচরণ ছিল বেআইনী ও হিংস্র আগ্রাসনের ন্যায়। সরকারের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সারাশহর জুড়েই যেন গত ২/৩ দিন অঘোষিত সান্ধ্য আইন জারি করে রেখেছে।

রিজভী অভিযোগ করেন, সিলেটে ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশের শেষে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদিরসহ ৩০ জন বিএনপি নেতাকর্মীকে পুলিশ আটক করে। নগরীর উপশহরের রোজভিউ হোটেলের সামনে থেকে খন্দকার আব্দুল মুক্তাদিরকে ধরে নিয়ে যায় পুলিশ। এসময় আরও কয়েকজনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে।

তিনি বলেন, সিলেটে ঐক্যফ্রন্টের এই জনসভায় বিপুল জনসমাগম দেখে সরকার উন্মাদগ্রস্ত হয়ে পড়ে। সভা-সমাবেশকে বানচাল করতে গিয়ে গনতন্ত্রের দেহে ভোটার বিহীন সরকার যেভাবে ছুরি চালাচ্ছেন, তাতে সরকার নিজেই নিজের বিপদ ডেকে আনছে। আগামী নির্বাচনে ভরাডুবির ভয়ে সরকার বিরোধী দলের ওপর আগাম আক্রমণ চালাচ্ছে।

বিএনপির এই মুখপাত্র মুক্তাদিরসহ নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। অবিলম্বে মুক্তাদিরসহ আটককৃত সকল নেতাকর্মীর মুক্তির জোর দাবি জানান রিজভী।