সুবর্ণচরে গণধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতদের ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৩২ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ৫, ২০১৯ | আপডেট: ১১:৩২:পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ৫, ২০১৯
সংগৃহীত

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে স্বামী-সন্তানকে বেঁধে রেখে গৃহবধূকে দলবেঁধে ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক রুহুল আমিন মেম্বারকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এবং এই ঘটনায় গ্রেপ্তার ৭ জনের ৭ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ। এ বিষয়ে শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে রোববার। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর স্বামী ৯ জনকে আসামি করে চরজব্বার থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ এ পর্যন্ত ৭ জনকে আটক করেছে।

মামলায় এজাহারভুক্ত সোহেল, স্বপন, ইব্রাহীম খলিল বেচু, বাদশা আলম বাসুকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এছাড়া তদন্তে প্রাপ্ত দোষী হিসেবে সাবেক ইউপি সদস্য রুহুল আমিন, জসিম উদ্দিন ও হাসান আলী ভুলুকে আটক করে।

গত রোববার রাতে চরজুবলী ইউনিয়নের মধ্যম বাগ্যা গ্রামের সোহেল, হানিফ, স্বপন, চৌধুরী, বেচু, বাসু, আবুল, মোশারেফ ও ছালাউদ্দিন ৪০ বছর বয়সী এক নারীর বসত ঘর ভাঙচুর করে।

এক পর্যায়ে তারা ওই নারীর স্বামী ও মেয়েকে বেঁধে রেখে তাকে ঘরের বাইরে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরদিন ওই নারী ও তার স্বামীকে ২৫০ শয্যার নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর স্বামী ৯ জনকে আসামি করে চরজব্বার থানায় মামলা দায়ের করেন। এখনও পর্যন্ত সুবর্ণচরে গণধর্ষণ মামলার মূল পরিকল্পনাকারী হাসান আলী ভুলুসহ মোট ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।