‘সু চির নোবেল প্রত্যাহার করা হবে না’

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৪৫ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৩, ২০১৮ | আপডেট: ১১:৪৫:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৩, ২০১৮

রোহিঙ্গা গণহত্যার বিষয়ে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চির ভূমিকা ‘দুঃখজনক’ হলেও তার নোবেল শান্তি পুরস্কার প্রত্যাহার করা হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন নোবেল ফাউন্ডেশনের প্রধান লারস হেইকেনস্টেন।

শুক্রবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, পুরস্কার দেওয়ার পরের কোনো ঘটনার প্রতিক্রিয়া হিসেবে তা কেড়ে নেওয়ার মানে হয় না। সেটা করতে হলে পুরস্কারপ্রাপ্তদের যোগ্যতা নিয়ে বিচারকদের সব সময় আলোচনা চালিয়ে যেতে হবে।

হেইকেনস্টেন বলেন, মিয়ানমারে সু চি যা করছেন তা যে বেশ প্রশ্নবিদ্ধ, তা আমরা দেখছি। আমরা মানবাধিকারের পক্ষে, এটা আমাদের অন্যতম প্রধান মূল্যবোধ। অবশ্যই বিস্তৃত অর্থে তিনি এর (রাখাইনে দমনপীড়ন) জন্য দায়ী, যা খুবই দুঃখজনক।

তিনি বলেন, অনেক ক্ষেত্রেই পুরস্কার পাওয়ার পর অনেকে এমন কিছু করেন যা আমরা অনুমোদন করতে পারি না। সেগুলো যে ঠিক- তাও মনে করি না। আগেও এমনটা হয়েছে, সবসময়ই হবে। এটা এড়ানো যাবে না বলেই আমার মনে হয়।

স্টকহোমভিত্তিক এ ফাউন্ডেশনই ছয়টি বিভাগে সুইডেন ও নরওয়ের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে নোবেল পুরস্কার দেওয়ার বিষয়টির তদারক করে থাকে। শান্তিতে নোবেল দেওয়ার দায়িত্বে থাকা নরওয়ের নোবেল কমিটি আগেই জানিয়েছিল, একবার পুরস্কার দেওয়ার পর তা কেড়ে নেওয়ার কোনো নিয়ম নেই।

রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়ন বন্ধে নিষ্ক্রিয়তার জন্য এক সময়ের পশ্চিমা মিত্ররাও এখন সু চির সমালোচনায় মুখর। অহিংস আন্দোলনের জন্য এক সময় তাকে যেসব পুরস্কার ও সম্মাননা দেওয়া হয়েছিল, গত দেড় বছরে তার অনেকগুলোই প্রত্যাহারের ঘোষণা এসেছে। সর্বশেষ সেপ্টেম্বর মাসের শেষে কানাডার পার্লামেন্টও সু চিকে দেওয়া সম্মানসূচক নাগরিকত্ব বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।