সৈয়দ আশরাফের বাসবভনে শোকাচ্ছন্ন পরিবেশ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:২১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৫, ২০১৯ | আপডেট: ৭:২১:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৫, ২০১৯
ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, জনপ্রশাসনমন্ত্রী ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম না ফেরার দেশে পাড়ি দিয়েছেন। গুণী এই রাজনীতিবিদের বেইলি রোডের সরকারি বাসভবনে বিরাজ করছে শোকাচ্ছন্ন পরিবেশ।

আজ শনিবার (৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় সৈয়দ আশরাফের মরদেহ বহনকারী বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইট হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। পরে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে দলটির কেন্দ্রীয় নেতারা মরদেহ গ্রহণ করেন।

এদিকে বিকেলের পর থেকেই তার বাসভবনে ভিড় জমিয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। বাড়ির চারপাশ ঘিরে শোকাচ্ছন্ন পরিবেশ বিরাজ করছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, বাড়ির সামনে খোলা জায়গায় সামিয়ানা করে একটি স্টেজ তৈরি করা হয়েছে মরদেহ রাখার জন্য। বাড়ির নিচতলায় রাখা হয়েছে শোক বই। নেতা-কর্মীরা সৈয়দ আশরাফকে হারানোর বেদনা লিখছেন শোক বইতে।

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা তোফাজ্জেল হোসেন জানিয়েছেন, বেইলি রোডের বাসভবনে দেড় ঘণ্টার মতো মরদেহ রাখা হবে। এরপর মরদেহ সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হবে।

সৈয়দ আশরাফের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে রবিবার (৬ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায়। এরপর মরদেহ হেলিকপ্টারে করে নিয়ে যাওয়া হবে ময়মনসিংহ এবং কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ময়দানে। সেখানে জানাজা শেষে বিকালে ঢাকার বনানী কবরস্থানে সৈয়দ আশরাফের মরদেহ দাফন করা হবে।

এর আগে, বৃহস্পতিবার (৩ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৯টায় ব্যাংককের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। রাতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম থাইল্যান্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। গুরুতর অসুস্থতার কারণে গত ১৮ সেপ্টেম্বর সংসদ থেকে ছুটি নেন তিনি।

দেশে না থেকেও গত ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কিশোরগঞ্জ-১ আসন থেকে নৌকা প্রতীকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন আওয়ামী লীগের এই সাবেক সাধারণ সম্পাদক।