সোহরাওয়ার্দীতে ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৪০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৬, ২০১৮ | আপডেট: ৫:৪০:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৬, ২০১৮

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে।  আজ দুপুর ১ টা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এ জনসভা শুরু হলেও এর আগেই কানায় কানায় ভরে ওঠে উদ্যান এলাকা।

রাজধানী ঢাকাসহ আশপাশের জেলাগুলো থেকে আসা বিএনপি নেতাকর্মীরা মিছিলে মিছিলে সরগরম করে তোলা জনসভাস্থল।

জনসভায় এখন পর্ন্ত প্রায় ২৫ জন বক্তা বক্তব্য রেখেছেন। তাদের বক্তব্যে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি প্রাধান্য পাচ্ছে।

জনসভার প্রধান অতিথি ঐক্যফ্রন্টের চেয়ারম্যান ড. কামাল হোসেন এবং প্রধান বক্তা জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব।

বক্তারা বলছেন, অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের স্বার্থেই খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। তা না হলে রক্তস্রোতের মাধ্যমেই খালেদা জিয়ার মুক্তি নিশ্চিত করতে হবে।

এছাড়া জনসভায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা তাদের সাত দফা দাবি মেনে নিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানানোর পাশাপাশি নির্বাচনী তফসিল পেছানো নিয়েও কথা বলছেন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ হলেও পুরো মাঠই দখলে রেখেছে বিএনপি। দলটির নেতাকর্মীরা বলছেন, দীর্ঘদিনের নিয়ন্ত্রিত সভা-সমাবেশের পর বড় পরিসরের এ জনসভা নির্বাচনের আগে একটি বড় ধরনের শোডাউন। এর মাধ্যমে তারা সরকারকে বার্তা দিতে চান।

সমাবেশে বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান ছাড়াও দলীয় নেতাদের মুক্তি, রাজনৈতিক মামলা প্রত্যাহারসহ নানা বক্তব্য সম্বলিত প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন ও ব্যানার বহন করছেন।

এদিকে জনসভাকে কেন্দ্র করে আশাপাশের এলাকায় বিপুলসংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। সমাবেশকে ঘিরে যেন কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে, সে বিষয়ে সতর্ক রয়েছেন তারা।

অন্যদিকে, সমাবেশ ঘিরে রাজধানীর শাহবাগসহ আশপাশের এলাকাগুলোর রাস্তায় তীব্র যানজট তৈরি হয়েছে। এসব এলাকা দিয়ে যাতায়াত করতে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে নগরবাসীকে।