স্ত্রীর ওপর অভিমান করে আত্মহত্যা করে স্বামী

প্রকাশিত: ৫:২৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯ | আপডেট: ৫:২৭:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯
প্রতীকী ছবি

উত্তম গোলদার, মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালী মির্জাগঞ্জে স্ত্রীর ওপর অভিমান করে মোঃ আতিকুর রহমান রবি (৩৫) নামে এক যুবক কীটনাশক পানে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত রোববার রাত ৮ টার দিকে মির্জাগঞ্জ ইউনিয়নের কপালভেড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সোমবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে পাঠিয়েছে। আতিকুর উপজেলার মির্জাগঞ্জ ইউনিয়নের কপালভেড়া গ্রামের মৃত মোঃ আনিসুর রহমান হাওলাদারের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, উপজেলার কপালভেড়া গ্রামের মৃত মো. আনিসুর রহমানের ছেলে আতিকুর রহমান রবি’র সাথে দুমকী উপজেলার আ্ঙ্গারিয়া ইউনিয়নের ঝাতারা গ্রামের মো. মানিক হাওলাদারের কন্যা মোসাঃ সুলতানা আক্তার ময়নার সাথে ১২ বছর আগে বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনে তাদের ৭ বছর বয়সের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

নিহতের মামা মো. জাকির হোসেন জানান, স্বামীর সাথে ঝগড়া বিবাদ করে ৪ মাস আগে স্ত্রী সুলতানা আক্তার ময়না তার কন্যা সন্তান অন্তরাকে নিয়ে তাঁর বাবার বাড়ি দুমকীতে চলে যান। এরপর আতিকুর বেশ কয়েকবার স্ত্রী ময়নাকে তাদের বাড়িতে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন।

সর্বশেষ গত ১৫ সেপ্টেম্বর রোববার আতিকুরের অভিভাবক (মামা) মো. রুবেল হোসেন, ভগ্নিপতি মো. জনি ও মো. হাকিম গাজীকে নিয়ে স্ত্রী ময়না আক্তারকে বাড়ি ফিরিয়ে আনতে যান কিন্তু তাতে ময়না আক্তারের মন গলাতে ব্যর্থ হন আতিকুর।

বাড়ি ফিরে ওইদিন সন্ধ্যায় আতিকুর সকলের অগোচরে কীট নাশক পান করে অসুস্থ হয়ে পরলে বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে মির্জাগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন।

মির্জাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম.আর শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, আতিকুর কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিল। এ কারণে স্ত্রী ময়না তাকে ছেড়ে বাবার বাড়ি চলে যাওয়ায় অভিমানে আতিকুর কীটনাশক পানে আত্মহত্যা করেছেন বলে তার পরিবার সূত্রে জানা গেছে।