স্বরাষ্ট্র বা জনপ্রশাসনের মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয় চায় ঐক্যফ্রন্ট

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:১৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৫, ২০১৮ | আপডেট: ৫:১৯:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৫, ২০১৮
ছবি: সংগৃহীত

প্রথমবার সংলাপের এক সপ্তাহ না পেরোতেই আওয়ামী লীগের সঙ্গে আবার সংলাপে বসছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। রোববার ঐক্যফ্রন্টের চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে আবার সংলাপের জন্য ৭ নভেম্বর বেলা ১১টায় সময় দেওয়া হয়েছে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী গতকাল রোববার রাতে ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে আবার সংলাপে বসার কথা জানিয়েছেন।

ঘনিষ্ঠ সূত্রগুলো বলছে, গত ১ নভেম্বর রাতে গণভবনে অনুষ্ঠিত সংলাপের পর বেশ কয়েকবার বৈঠকে বসেছে ঐক্যফ্রন্টে নেতারা। আর এসব বৈঠকের আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে নতুন করে সংলাপের বিষয়টি এসেছে। জানা গেছে, এবারের সংলাপে নির্বাচনকালীন সরকারের বিষয়ে আলোচনা করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। এতে তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনেই নির্বাচনে রাজি হয়েছেন তবে কিছু শর্ত দেওয়া হয়েছে তাতে।

যার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে, নির্বাচনকালীন সরকারের মন্ত্রিসভায় টেকনোক্র্যাট কোটায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট বা সংসদের বাইরের বিরোধীদলগুলো থেকে মন্ত্রী করে তাদের স্বরাষ্ট্র বা জনপ্রশাসনের মতো গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয় দেওয়া।

এছাড়া সংসদ ভেঙে দিয়ে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে ভোট গ্রহণও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিনে মুক্তি ও তার ভোটে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে সাজা স্থগিত করাা দাবিও রয়েছে। সূত্র জানায়, সরকার সংসদ ভেঙে নির্বাচন দেওয়ার দাবি মানলে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনে অংশ নেওয়া বিষয়টিতে ঐক্যফ্রন্ট অনড় থাকবে না।