হাওরে আধুনিক মেশিন দিয়ে ধানকাটা শুরু, কৃষকদের মধ্যে স্বস্তি

হাবিবুল্লাহ হেলালি হাবিবুল্লাহ হেলালি

দোয়ারাবাজার(সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৭:৫৩ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২০ | আপডেট: ৭:৫৬:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২০

দোয়ারাবাজার উপজেলার দেখার হাওরে কম্বাইন হারবেস্টার আধুনিক মেশিন দিয়ে ধানকাটা শুরু হওয়ায় হাওরপাড়ের কৃষকদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবে ধান কাটার ভর মৌসুমে শ্রমিক সংকটে স্থানীয় কৃষকদের চাহিদার ভিত্তিতে সরকারি ভর্তূকী মূল্যে গত রোববার উপজেলা কৃষি
সম্প্রসারণ অফিস কর্তৃপক্ষ উপজেলার পান্ডারগাঁও ইউনিয়নের কৃষক সিরাজ উদ্দিন ও মান্নারগাঁও ইউনিয়নের কৃষক মোহাম্মদ আলীর নিকট আনুষ্ঠানিকভাবে
দুটি মেশিন হস্তান্তর করেন।

এ উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার সকালে আনুষ্ঠানিক ভাবে ধান কাটার উদ্বোধন করেন উপজেলা কৃষি অফিসার শেখ মো. মহসিন। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপসহাকারী কৃষি কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন, এসিআই কো¤পানি লি. এর সুনামগঞ্জ জেলার প্রধান সমন্বয়ক ইঞ্জনিয়ার মো.সেলিম, কৃষক সিরাজ উদ্দিন প্রমুখ।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানায়, এ বছর উপজেলার বিভিন্ন হাওরে বোরো আবাদ করা হয়েছে ১২ হাজার ৯শ ৬০ হেক্টর জমিতে। উপজেলার দেখার হাওর, নাইন্দার হাওর, কানলার হাওরসহ প্রায় সব ক’টি হাওরের ধান পাকতে শুরু করেছে।

ইতিমধ্যে ৪০ ভাগ ধান পেকে কাটার উপযোগী হলেও করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে ধানকাটার শ্রমিকের চরম সংকট দেখা দিয়েছে। স্থানীয় কৃষকদের আবেদনের প্রেক্ষিতে সরকার দেড় কোটি টাকা মূল্যের দুটি জাপানী কম্বাইন হারবেস্টার (ধান কর্তন, মাড়াই ও ঝাড়াই যন্ত্র) ভর্তুকী মূল্যে (অর্ধেক মূল্যে) প্রদান করে। উন্নত মানের ওই মেশিন দিয়ে একই সঙ্গে ধান কাটা, মাড়াই, ঝাড়াই ও বস্তাবন্দি করে খুব সহজে অল্প সময়ে কৃষকরা ধান তাদের ঘরে তুলতে পারবেন। এতে লোক সমাগমেরও কোনো প্রয়োজন হবেনা।