১০০ কোটি টাকার দেনা কাঁধে নিয়ে দায়িত্ব নিলেন মেয়র লিটন

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:৫৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৫, ২০১৮ | আপডেট: ৮:৫৩:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৫, ২০১৮
ছবি সংগৃহীত

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন শপথগ্রহণ করেছেন। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে এ শপথগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। মেয়রকে শপথবাক্য পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

১০০ কোটি টাকা দেনা মাথায় নিয়ে জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) মেয়রের দায়িত্ব নিলেন এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

বিশিষ্ট নাগরিক আর বিপুলসংখ্যক নগরবাসীর উপস্থিতিতে শুক্রবার বিকালে এক রাজসিক অনুষ্ঠানে দায়িত্বগ্রহণ করেন তিনি।

এ সময় সিটি কর্পোরেশনের ৪০ জন কাউন্সিলরও দায়িত্ব নেন। দায়িত্বগ্রহণের সময় মেয়র এবং কাউন্সিলররা একে অপরের হাতে হাত রেখে রাজশাহীর উন্নয়নে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার অঙ্গীকার করেন।

রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর উর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রাসিকের বিগত পরিষদের প্যানেল মেয়র আনোয়ারুল আজিম আজবের কাজ থেকে দায়িত্বগ্রহণ করেন এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

এ সময় বিভিন্ন শ্রেণিপেশার বিপুলসংখ্যক মানুষ লিটনকে হাততালি দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

অনুষ্ঠানে প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক, রাজশাহী-১ আসনের এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী, রাজশাহী-২ আসনের ফজলে হোসেন বাদশা, রাজশাহী-৩ আসনের আয়েন উদ্দিন, রাজশাহী-৪ আসনের প্রকৌশলী এনামুল হক, রাজশাহী-৫ আসনের আবদুল ওয়াদুদ দারা, সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি আক্তার জাহান, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের প্রথম মেয়র আবদুল হাদী, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আবদুস সোবহান, স্থানীয় সরকার বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মাহবুব হোসেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এনজিওবিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক কেএম আবদুস সালাম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার, ভাষাসৈনিক আবুল হোসেনসহ শিক্ষাবিদ, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, বিশিষ্ট ব্যক্তিরা এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, রাসিকের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিপুলসংখ্যক নগরবাসী উপস্থিত ছিলেন।

গত ৩০ জুলাই অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বিএনপির মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে বিশাল ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে দ্বিতীয় দফায় মেয়র নির্বাচিত হন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এর আগে ২০০৮ সালে প্রথমবার মেয়র নির্বাচিত হন তিনি। কিন্তু ২০১৩ সালের নির্বাচনে বিএনপি নেতা বুলবুলের কাছে পরাজিত হন লিটন।

দায়িত্বগ্রহণ অনুষ্ঠানে লিটন বলেন, বর্তমানে রাসিকের ১০১ কোটি টাকার দেনা রয়েছে। ২০১৩ সালে আমি ক্ষমতা ছাড়ার সময় ২১ কোটি টাকা উদ্বৃত্ত রেখে ক্ষমতা ছেড়েছিলাম। কিন্তু গত ৫ বছরে বিএনপির সাবেক মেয়র রাজশাহীকে পিছিয়ে দিয়েছেন। এমনকি আমি এর আগে মেয়র থাকাকালে যে প্রকল্পগুলো হাতে নিয়েছিলাম সেগুলোও বাস্তাবায়ন করতে পারেননি তিনি। এবার এসব প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করব। এর মাধ্যমে রাজশাহী মডেল নগরী হিসেবে পুরো এশিয়ায় পরিচিতি পাবে।