১ জানুয়ারি বাংলাদেশে ৮৪২৮ শিশুর জন্ম!

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২, ২০১৯ | আপডেট: ১২:৩০:পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২, ২০১৯
সংগৃহীত ছবি

১ জানুয়ারি, নতুন বছরের প্রথম দিনেই বাংলাদেশে অন্তত ৮৪২৮ শিশুর জন্ম হবে বলে জানিয়েছে ইউনিসেফ। সারাবিশ্বে আজ যে পরিমাণ শিশুর জন্ম হবে তার মধ্যে ২.১৩ শতাংশের জন্ম হবে বাংলাদেশে। নতুন বছরের এই দিনে সারাবিশ্বে অন্তত ৩৯৫,০৭২ শিশু জন্ম নেবে।

সারাবিশ্বের বিভিন্ন শহরে হুল্লোরকারীরা শুধু নতুন বছরকেই অনেক অনেক আয়োজনের মধ্য দিয়ে স্বাগত জানাবে না বরং তাদের শহরের সবচেয়ে নতুন ও সবছেয়ে ছোট বাসিন্দাদেরও স্বাগত জানাবে তারা।

২০১৯ সালের প্রথম শিশুটির দেখা পেয়েছে প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপ দেশ ফিজি। ইউনিসেফের হিসাবে, প্রথম দিনে জন্ম নেয়া শিশুদের এক চতুর্থাংশের জন্ম হবে দক্ষিণ এশিয়ায়। আর এদিনের মোট শিশুদের অর্ধেক জন্ম নেবে নীচের আটটি দেশে:

ভারত- ৬৯,৯৪৪

চীন- ৪৪,৯৪০

নাইজেরিয়া- ২৫৬৮৫

পাকিস্তান- ১৫১১২

ইন্দোনেশিয়া- ১৩২৫৬

যুক্তরাষ্ট্র- ১১০৮৬

ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অফ কঙ্গো- ১০,০৫৩

বাংলাদেশ- ৮৪২৮

এই শিশুদের অনেকের নানারকম নাম দেওয়া হবে আবার অনেকে হয়তো নাম পাওয়ার আগেই মারা যেতে পারে।

২০১৭ সালের দিকে তাকালে দেখা যায়, অন্তত ১ মিলিয়ন শিশু জন্মের দিনই মৃত্যুবরণ করে। ২.৫ মিলিয়ন শিশু প্রাণ হারায় তাদের জন্মের মাসেই। তাদের বেশিরভাগই প্রতিরোধ করা যায় এমন সব কারণে প্রাণ হারায়, যেমন অপরিণত বয়সে জন্ম, জন্মদানের সময়ের জটিলতা, পচন বা নিউমোনিয়ার মতো ইনফেকশন। এসবই টিকে থাকার মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী।

ইউনিসেফের সহকারী নির্বাহী পরিচালক ক্যারলোটে পেত্রি গর্নিৎজকা বলেন, ‘এবার নতুন বছরের প্রথম দিনে আমাদের সবার অঙ্গিকার করতে হবে, যেন প্রত্যেকটা শিশু তার অধিকার থেকে বঞ্চিত না হয়। আর সেটার শুরু হোক শিশুটির বেঁচে থাকার অধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে।’

তিনি আরও বলেন, আমরা লাখ লাখ শিশুকে বাঁচাতে পারি যদি স্থানীয় স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশিক্ষণ এবং প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি সরবরাহের পেছনে বিনিয়োগ করা সম্ভব হয়।’ তবে কেন এই দিনেই সবেচেয়ে বেশি শিশুর জন্ম হয় সে সম্পর্কে কিছু বলেনি সংস্থাটি।