৪৩ লাখ টাকা করে পেলো ইউএস-বাংলা দুর্ঘটনায় নিহতদের আট পরিবার

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:১০ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৮ | আপডেট: ১০:১০:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৮
সংগৃহীত ছবি

টিবিটি মেট্রোঃনেপালের কাঠমান্ডুতে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান দুর্ঘটনায় হতাহতদের আট পরিবারকে বিমা দাবি পরিশোধ করেছে সেনা কল্যাণ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড।

বুধবার (১৭ সেপ্টেম্বর) মহাখালীর রাওয়া ক্লাবে সেনাকল্যাণ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল ফিরোজ হাসান ক্ষতিপূরণের চেক হস্তান্তর করেন।

পরিবারগুলোকে সর্বমোট তিন লাখ ৪৯ হাজার ৫০০ ইউএস ডলারের সমপরিমাণ অর্থ প্রদান করা হয়। দুর্ঘটনায় নিহতদের ছয় পরিবারের প্রত্যেককে ৫১ হাজার ২৫০ ইউএস ডলার করে দেওয়া হয় যা বাংলাদেশি টাকায় ৪৩ লাখ ৭৭ হাজার টাকার বেশি। এছাড়া আহতদের দুই পরিবারকে ৪২ হাজার ইউএস ডলার (৩৫ লাখ ৮৭ হাজার ৬০০ টাকার বেশি) করে দেওয়া হয়।

এর আগে গত ৬ আগস্ট আট পরিবারের মাঝে ক্ষতিপূরণের চার লাখ ১০ হাজার ইউএস ডলার বিতরণ করা হয়। আদালতের নির্দেশনা পাওয়ার পর অবশিষ্ট ৯ পরিবারের মধ্যে ক্ষতিপূরণের বাকি অর্থ প্রদান করা হবে।

সেনাকল্যাণ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল ফিরোজ হাসান বলেন, সেনাকল্যাণ ইনস্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড বিগত ৩ বছর যাবৎ ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমা প্রতিষ্ঠান হিসেবে অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে আসছে।

যেহেতু সেনাকল্যাণ সংস্থা একটি কল্যাণমুখী সংস্থা, তাই তার অঙ্গপ্রতিষ্ঠান হিসাবে ক্ষতিগ্রস্তদের কল্যাণে কাজ করাই সেনাকল্যাণ ইনস্যুরেন্স কোম্পানির মূল উদ্দেশ্য।’

চলতি বছর ১২ মার্চ নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ড্যাশ-৮ কিউ ৪০০ মডেলের উড়োজাহাজটি দুর্ঘটনার শিকার হয়। উড়োজাহাজটিতে চারজন ক্রু ও ৬৭ জন যাত্রীসহ মোট ৭১ আরোহী ছিলেন। তাদের মধ্যে চারজন ক্রুসহ মোট ২৭ জন বাংলাদেশি, ২৩ জন নেপালি ও একজন চীনা যাত্রী নিহত হন।

এছাড়া এ ঘটনায় আহত হন নয়জন বাংলাদেশি, ১০ জন নেপালি, একজন মালদ্বীপের নাগরিক।